হেডলাইন
◈ একদিনে হাসপাতালে রেকর্ড ৪৩৮ ডেঙ্গু রোগী! ◈ আমার গ্রাম-আমার শহর’ বাস্তবায়নে ২৪৫ প্রকল্প ◈ সীমান্তের ঘটনায় আরাকান আর্মি-আরসার ওপর দায় চাপালো মিয়ানমার! ◈ ভারতে ইলিশ রপ্তানি বন্ধে স্থায়ী নির্দেশনা চেয়ে রিট! ◈ সাংবাদিক শাকিল হাসানকে হত্যাচেষ্টার মামলায় রায় ১৮ অক্টোবর! ◈ যুবলীগের সম্পাদক নিখিলসহ ৫০০ জনের বিরুদ্ধে বিএনপির মামলার আবেদন! ◈ শহীদ আফ্রিদির সংস্থায় সেই ব্যাট দিলেন নাসিম শাহ ◈ হঠাৎ মোদি ও এরদোগানের বৈঠক ◈ সাগরে আবারও লঘুচাপ সৃষ্টির আভাস, বাড়তে পারে বৃষ্টি ◈ নতুন রুপে আবার অভিনয়ে নিয়মিত রত্না ◈ ওমরাহ পালনে সৌদি গেলেন টাইগার অলরাউন্ডার ◈ জাতীয় পার্টি কোনো জোটে নেই: জিএম কাদের ◈ রানির শোভাযাত্রায় ডায়ানার যে স্মৃতি মনে দাগ কেটেছে প্রিন্স উইলিয়ামের ◈ মৃত্যুর পরে কি হয় তাদের লাশ || ◈ শান্তর ভূয়সী প্রশংসায় যা বললেন শ্রীরাম ◈ রাশিয়ার বিরুদ্ধে যে অঙ্গীকার করলেন জেলেনস্কি ◈ বিএনপি নেতা শাহ মোয়াজ্জেম আর নেই ◈ ফের নাম্বার ওয়ান অলরাউন্ডার সাকিব ◈ রাশিয়া প্রথমবারের মতো ইরানের ড্রোন ব্যবহার করেছে ◈ ভারত সফরে বাংলাদেশ কী পেল, যা বললেন প্রধানমন্ত্রী
হোম / আন্তর্জাতিক / বিস্তারিত

For Advertisement

গর্বাচেভের মৃত্যু নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য দিলেন তার দোভাষী

২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ৫:২০:৫৫

প্রয়াত সোভিয়েত নেতা মিখাইল গর্বাচেভের রাশিয়ার ইউক্রেনে আগ্রাসনের কারণে আঘাত পেয়েছিলেন। বিষয়টি তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে ভেঙে দিয়েছিল বলে কয়েক দশক ধরে তার দোভাষী হিসেবে কাজ করা পাভেল পালাজচেঙ্কো বলেছেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্স শুক্রবার এক প্রতিবেদন এ তথ্য জানিয়েছে।
রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৩৭ বছর ধরে প্রয়াত সোভিয়েত নেতার সঙ্গে কাজ করেছিলেন পালাজচেঙ্কো। তিনি অসংখ্য মার্কিন-সোভিয়েত শীর্ষ সম্মেলনে গর্বাচেভের সঙ্গে ছিলেন। কয়েক সপ্তাহ আগে গর্বাচেভের সঙ্গে তার ফোনে কথা হয়। তিনি এবং অন্যরা ইউক্রেনের ঘটনায় কতটা মানসিক আঘাত পেয়েছেন সেই বিষয় নিয়েই তাদের ফোনে আলাপ হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তিনি বলেন, এটা শুধু ২৪ ফেব্র্রুয়ারি শুরু হওয়া বিশেষ অভিযানই নয়, গত কয়েক বছর ধরে রাশিয়া ও ইউক্রেনের মধ্যকার সম্পর্ক তার জন্য ছিল সত্যিকারের বড় ধরনের ধাক্কা। এটা তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে ভেঙে দিয়েছিল।

পালাজচেঙ্কো আরও বলেন, তার সঙ্গে আমাদের কথোপকথনে এই বিষয়টি আমাদের কাছে খুব স্পষ্ট হয়ে ওঠে যে, তিনি যা ঘটছে তাতে (ফেব্রুয়ারিতে রাশিয়ান সৈন্যরা ইউক্রেনে প্রবেশের পরে) একেবারে হতবাক ও বিভ্রান্ত হয়ে গিয়েছিলেন। তিনি কেবল রাশিয়ান এবং ইউক্রেনীয় জনগণের ঘনিষ্ঠতায় বিশ্বাস করতেন না, তিনি বিশ্বাস করতেন যে এই দুটি জাতি মিশে আছে।

বুধবার গর্বাচেভের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিখাইল গর্বাচেভের মৃত্যু হয়। তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর।

মিখাইল গর্বাচেভ বিশ্বে নন্দিত ও নিন্দিত দুটোই। এক সময়ের কমিউনিস্ট নেতা ছিলেন গর্বাচেভ। রাশিয়ায় দীর্ঘসময় ধরে চলা সমাজতন্ত্রের পতন হয়েছিল তার নেতৃত্বেই। ওই পতনের মধ্য দিয়ে বিশ্বে স্নায়ুযুদ্ধের অবসান ঘটেছিল।

তাই সমাজতন্ত্রবাদীদের কাছে নিন্দিত গর্বাচেভ স্নায়ুযুদ্ধের অবসান ঘটানোর জন্য নন্দিতও বটে। অনেক রুশ গর্বাচেভকে ঘৃণা করেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, পরাশক্তি থেকে রাশিয়াকে দুর্দশাগ্রস্ত দেশের কাতারে নিয়ে আসার জন্য অনেক রুশ এখনও গর্বাচেভকে ক্ষমা করতে পারেন না।

সোভিয়েত পতনের পর নিজেও ক্ষমতা হারান গর্বাচেভ। এর পর পশ্চিম দেশগুলোতে বক্তৃতা দিয়েই সময় পার করতেন। ১৯৯৯ সালে স্ত্রী রাইসা গর্বাচেভের মৃত্যুতে অনেকটাই ভেঙে পড়েন তিনি।

১৯৯৬ সালে পরিবর্তিত রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন গর্বাচেভ, তবে ভোট পেয়েছিলেন মোটে ৫ শতাংশ।

রাশিয়ার বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের এক সময় কড়া সমালোচক ছিলেন গর্বাচেভ। তবে ২০১৪ সালে পুতিনের নির্দেশে যখন ক্রিমিয়া দখল করে রাশিয়া, তখন তার পক্ষেই ছিলেন তিনি। গত বছর গর্বাচভের ৯০তম জন্মদিনে তাকে আবার প্রশংসায় ভাসিয়েছিলেন পুতিন।

For Advertisement

পূর্বাকাশ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: