ADS
হেডলাইন
◈ সিয়াম-পূজার ‘শান’ এবার প্যারিসে ◈ দোনবাসে ৪০ শহরে গোলাবর্ষণ করেছে রাশিয়া ◈ বান্দরবানে পর্যটকবাহী গাড়ি খাদে পড়ে নিহত ১, আহত ৮ ◈ যুক্তরাষ্ট্রে স্কুলে গুলি, ১৯ শিক্ষার্থীসহ নিহত ২১ ◈ ইউক্রেনকে ৫৩৫ মিলিয়ন ডলার দিচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ◈ মেক্সিকোতে বার-হোটেলে বন্দুক হামলায় নিহত ১১ ◈ বাংলাদেশ বার কাউন্সিল নির্বাচন আজ! ◈ নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ ট্রাস্টি কারাগারে ◈ পুতিনের সঙ্গে দেখা করতে চাই: জেলেনস্কি ◈ শ্রমিকেরা কেন বকেয়া মজুরি পাবেন না ◈ টসে জিতে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ, মোসাদ্দেকের ফেরা ◈ রাবিতে স্নাতক ভর্তি পরীক্ষা শুরু ২৫ জুলাই ◈ দায়ীদের আইনের আওতায় আনা হোক ◈ পুলিশের কাজে বাধা: ছাত্রদলের দুই নেতার জামিন মেলেনি! ◈ মাছ চাষে সাফল্য, বদলে গেছে পুরো গ্রাম ◈ পাকিস্তানের সাবেক মন্ত্রীকে মারধরের পর গ্রেপ্তারের অভিযোগ ◈ নিবার্চনী প্রচারণায় অংশ না নিতে বিএনপির নেতা-কর্মীদের নির্দেশ ◈ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হলেই গ্রেফতার করা যাবে না: আইনমন্ত্রী ◈ চকরিয়ায় যুগ্ম সচিবের গাড়ির ধাক্কায় পথচারী নিহত ◈ একদিনের ব্যবধানে জাল স্ট্যাম্প বিক্রির অভিযোগে গ্রেপ্তার আরও চার

For Advertisement

পাকিস্তানের ২৩ তম প্রধানমন্ত্রী হলেন শাহবাজ শরিফ!

১১ এপ্রিল ২০২২, ৭:৩৬:০০

ইমরান খানের ক্ষমতাচ্যুতির পর পাকিস্তানের ২৩তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন শাহবাজ শরিফ। পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) প্রেসিডেন্ট শাহবাজ দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ভাই।

সম্মিলিত বিরোধী জোটের প্রার্থী শাহবাজ শরিফ। সোমবার (১১ এপ্রিল) পার্লামেন্টে ভোটগ্রহণের আগে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) সদস্যরা ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলি থেকে ওয়াক আউট করেন। এর আগে তাদের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী শাহ মেহমুদ কোরেশি নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রক্রিয়া বয়কটের ঘোষণা দেন।নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগ প্রক্রিয়া অনুষ্ঠিত হয় এমএনএ আয়াজ সাদিকের সভাপতিত্বে। এর আগে সোমবার সাময়িক বিলম্বের পর পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত এবং নাত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে অধিবেশন শুরু হয়। ওই সময় অধিবেশন পরিচালনা করেন ডেপুটি স্পিকার কাসিম সুরি।

কাসিম সুরি নির্বাচন প্রক্রিয়া পরিচালনায় অপারগতা প্রকাশের পর পিএমএল-এন নেতা আয়াজ সাদিক দায়িত্ব নেন। দায়িত্ব নিয়েই তিনি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের নিয়ম এবং প্রক্রিয়ার বিস্তারিত পড়ে শোনান। তিনি জানান, ভোট গ্রহণ শুরুর আগে পাঁচ মিনিট ধরে বেল বাজানো হবে, যাতে সদস্যরা অধিবেশন কক্ষে প্রবেশ করতে পারেন।

আয়াজ সাদিক জানান, বেল বাজা বন্ধ হলে অধিবেশন কক্ষে প্রবেশ এবং বের হওয়ার রাস্তা বন্ধ করে দেওয়া হবে এবং ভোট শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত তা বন্ধ রাখা হবে।

ঘোষণার পর প্রধানমন্ত্রী পদের প্রার্থীদের নাম পড়ে শোনান আয়াজ সাদিক। পিএমএল-এন প্রেসিডেন্ট শাহবাজ শরিফ এবং পিটিআইর শাহ মাহমুদ কোরেশির নাম ঘোষণা করেন তিনি। তবে এ সময় ভুলবশত তিনি প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী হিসেবে পিএমএল-এন-এর সর্বোচ্চ নেতা নওয়াজ শরিফের নাম বলে ফেলেন। দ্রুত তা সংশোধন করে তিনি বলেন, ‘আমি ক্ষমা চাইছি শাহবাজ সাহেব, নওয়াজের নাম আমার হৃদয়ে রয়ে গেছে।’

এরপরে আইনপ্রণেতাদের মধ্যে যারা শাহবাজ শরিফের পক্ষে যারা ভোট দিতে চান তাদের বাম পাশে এবং যারা কোরেশির পক্ষে তাদের ডান পাশে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান আয়াজ সাদিক। পরে ভোট শেষে রেজাল্ট শিট পার্লামেন্ট সচিবালয়ে পৌঁছে দেওয়া হয়।

ফলাফল ঘোষণা করে আয়াজ সাদিক বলেন, ‘মিয়া মোহাম্মদ শাহবাজ শরিফ ১৭৪ ভোট পেয়েছেন। মিয়া মোহাম্মদ শাহবাজ শরিফ ইসলামিক রিপাবলিক অব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন।’

শপথের প্রস্তুতি

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে তার শপথ অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জিও নিউজ জানিয়েছে, প্রেসিডেন্টের বাসভবনে সোমবারই শপথ অনুষ্ঠান হতে পারে।

নতুন প্রধানমন্ত্রীকে শপথ বাক্য পাঠ করাবেন প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি। বর্তমানে প্রেসিডেন্টের বাসভবনে শপথ অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে।

একনজরে শাহবাজ শরিফের রাজনৈতিক জীবন-

মিয়া মোহাম্মদ শাহবাজ শরিফ সোমবার পাকিস্তানের ২৩তম প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। দেশটির পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ জাতীয় পরিষদের ৩৪২ জন সদস্যের মধ্যে ১৭৪ জনের সমর্থন পেয়েছেন তিনি। জাতীয় পরিষদে ১৫৫ আসন নিয়ে বৃহত্তম দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) দলের সদস্যরা অধিবেশন বয়কট ও পদত্যাগের সিদ্ধান্তের পর ভোটে জয়ী হন তিনি।

১৯৫০ সালে লাহোরে জন্ম শাহবাজ শরিফের। তিনি পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) সুপ্রিমো ও তিনবারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের ছোট ভাই।পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তিনবার দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। প্রথমে ১৯৯৭-১৯৯৯ সাল পর্যন্ত এই দায়িত্বে ছিলেন তিনি। সাবেক সামরিক শাসক পারভেজ মোশাররফ শরিফ ভাইদের সৌদি আরবে নির্বাসিত করার আগ পর্যন্ত তিনি এই দায়িত্বে ছিলেন। এরপর ২০০৮-২০১৩ এবং ২০১৩-২০১৮ পর্যন্ত পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। পিটিআই’র শাসনামলে তিনি জাতীয় পরিষদের বিরোধী দলীয় নেতা ছিলেন।

কাজপাগল হিসেবে বিবেচিত শাহবাজ নিজেকে মুখ্যমন্ত্রীর বদলে খাদিম-ই-আলা (প্রধান সেবক) পরিচয় দিতে পছন্দ করেন।

মিয়া মোহাম্মদ শরিফের দ্বিতীয় ছেলে শাহবাজ। তিনি ছিলেন একজন প্রভাবশালী ব্যবসায়ী এবং যৌথভাবে ইত্তেফাক গ্রুপ অব কোম্পানিজের মালিক। ১৯৮৫ সালে লাহোর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন।১৯৮৮ সালে প্রথমবার শাহবাজ পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলির এমপিএ নির্বাচিত হন। ১৯৯০ সালে তিনি জাতীয় পরিষদের আসনে নির্বাচন করেন এবং এমএনএ হন। তবে ১৯৯৩ সালে আবার প্রাদেশিক পরিষদের আসনে প্রার্থী হন এবং পাঞ্জাব অ্যাসেম্বলির বিরোধী দলীয় নেতায় পরিণত হন। ১৯৯৬ সালে অ্যাসেম্বলি বিলুপ্ত হলে তার মেয়াদ শেষ হয়।

১৯৯৭ সালের নির্বাচনে জয়ের পর তিনি প্রথমবারের মতো পাকিস্তানের বৃহত্তম প্রদেশ শাসনের সুযোগ পান। ১৯৯৯ সালে মুশাররফের সামরিক অভ্যুত্থানের আগ পর্যন্ত তিনি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

প্রায় এক দশক নির্বাসন থেকে ফিরে আবারও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হন শাহবাজ। ২০০৮ সালের নির্বাচনে পিএমএল-এন সংখ্যাগরিষ্ঠ আসনে জয়ী হলে তিনি প্রাদেশিক সরকার গঠন করেন।

For Advertisement

পূর্বাকাশ ডট কম’র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Comments: